বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
প্রধানমন্ত্রী ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন মঙ্গলবার দাবি না মানলে বিদ্যালয়ে তালা লাগাবে প্রাথমিকের শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রী রাজশাহী যাচ্ছেন রোববার লাকসামে কিশোর গ্যাং এর ৬ সদস্য গ্রেফতার খাল উদ্ধারের পর চালু হবে ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট : তাজুল ইসলাম ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ এখন ঢাকায় শেখ হাসিনার একান্ত প্রচেষ্টায় ৫০০ মডেল মসজিদ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নতুন ডিএমপি কমিশনারের শ্রদ্ধা
২৬৯

গর্ভাবস্থায় সহবাস করা কি নিরাপদ ?

তরুণ কন্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩০ জুন ২০১৯  

প্রাপ্ত বয়স্ক নারী ও পুরুষেরা বিবাহের পর দীর্ঘদিন সহবাস করলে সেটা একটা অভ্যাসে পরিনত হয়। কিন্তু নারীরা যখন গর্ভবতী হয় তখন সেই অবস্থায় সহবাস করা নিয়ে দ্বিধায় ভোগেন।নিজেদের যৌন উত্তেজনা সামলাতে পারে না সহজে। তারফলে অনেক সময় বিপরীতে যায়। তাই আসুন জেনে নেওয়া যাক গর্ভাবস্থায় সহবাস করা কি উচিত, আর করলে কি কি হতে পারে, আর কোন কোন পন্থা অবলম্বন করা দরকার।

গর্ভাবস্থায় একজন মহিলা যতদিন স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারে মূলত ততদিন সহবাসে কোন সমস্যার সৃষ্টি হয় না। অর্থাৎ প্রসব যন্ত্রনা আরম্ভের আগে পর্যন্ত সহবাস নিরাপদ হিসাবেই মানা হয়। কিন্তু এই সময়েও কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত।গর্ভাবস্থায় সহবাসের সময় স্বাভাবিক মিলন বাচ্চার খুব একটা ক্ষতি করেনা। কারন শিশু জড়ায়ুর শক্ত পেশি দ্বারা তলপেটে সুরক্ষিত থাকে। এছাড়াও জরায়ুর মুখ মিউকাস প্লাগ দ্বারা সিল করা থাকে, যার কারনে পুরুষের গোপনাঙ্গ মহিলার গোপনাঙ্গে প্রবেশ করলেও বাচ্চার কোন ইনফেকশান হয় না। কারন সেই পর্যন্ত যৌনাঙ্গ পৌছাতে পারে না। তাই শিশু নিরাপদে থাকে।

আর সহবাসের সময় অর্গাজমের পর জড়ায়ুর পেশির মৃদু সংকোচন হয়। যার ফলে আপনার হার্টবিট সাময়িক সময়ের জন্য বৃদ্ধি পায়, তবে সেটা বাচ্চার জন্য ক্ষতিকারক নয়। সহবাসের জন্য কখনই গর্ভপাত কিংবা প্রসব বেদনার সৃষ্টি হয় না।তবে কিছু কিছু সমস্যা থাকে যেগুলো থাকলে গর্ভাবস্থায় সহবাস না করাটাই নিরাপদ। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই কারন।

১. প্লাসেন্টা প্রিভিয়াঃ যদি গর্ভাবস্থায় প্লাসেন্টা প্রিভিয়া জরায়ুর নীচে অবস্থান করে আর জড়ায়ুর মুখ সম্পুর্নরূপে ঢেকে ফেলে তবে গর্ভাবস্থায় সহবাস রক্তপাত ও প্রাক প্রসব বেদনার কারন হতে পারে।২. যমজ সন্তানঃ যদি মহিলার গর্ভে জমজ সন্তান থাকে তবে সহবাস না করাই যুক্তি সম্মত।৩. গর্ভপাতঃ যদি গর্ভাবস্থার পূর্বে কোনবার গর্ভপাত হয়ে থাকে বা করিয়ে থাকে তবে গর্ভাবস্থায় মিলন উচিত নয়।

৪. প্রি ডেলিভারিঃ যদি বাচ্চা ডেলিভারি স্বাভাবিক সময় থেকে আগে হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তবে গর্ভাবস্থায় সহবাস থেকে বিরত থাকুন।৫. অস্বাভিকতাঃ গর্ভাবস্থায় মিলনের সময় যদি আপনি অস্বস্তি ও যোনিপথে তরলেও অস্বাভিবতা লক্ষ্য করেন তাহলে সহবাস বন্ধ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।তবে গর্ভাবস্থায় সহবাসের ইচ্ছা থাকলে সেটা ডাক্তারের সাথে আলোচনা করে নিন। লজ্জা পাবেন না, তাতে আপনারই ক্ষতি। ডাক্তারের মতামত নিয়েই সহবাস করুন। তাতে আপনিও সুখ পাবেন আর আপনার সন্তানও ভালো থাকবে।