মঙ্গলবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২২   মাঘ ১১ ১৪২৮   ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৪২

হ্যাডলি-সাউদিদের পাশে জেমিসন

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২২  

আইসিসি টেস্ট বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ক্যারিয়ার সেরা তিন নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের এই পেসার।

RELATED STORIES
ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাঙ্কিংয়ে লিটন

বাংলাদেশ ও নিউ জিল্যান্ডের টেস্ট সিরিজ, অ্যাশেজের চতুর্থ টেস্ট ও ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় টেস্টের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে বুধবার র‍্যাঙ্কিংয়ের সাপ্তাহিক হালনাগাদ প্রকাশ করে আইসিসি। সেখানে আরেকটি অর্জন ধরা দিয়েছে জেমিসনের হাতে। নিউ জিল্যান্ডের টেস্ট ইতিহাসে ৮২৫ রেটিং পয়েন্ট ছোঁয়া বা তার বেশি অর্জন করা পঞ্চম বোলার ২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। এখন তার পয়েন্ট ঠিক ৮২৫।

১৯৮৫ সালের নভেম্বরে রিচার্ড হ্যাডলি (৯০৯), ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নিল ওয়্যাগনার (৮৫৯), ২০২১ সালের নভেম্বরে টিম সাউদি (৮৩৯) ও ২০১৫ সালের মে মাসে ট্রেন্ট বোল্ট (৮২৫) গড়েন এই কীর্তি।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে সফরকারীদের বিপক্ষে হেরে যাওয়া টেস্টে কেবল দুই উইকেট নেন জেমিসন। ঘুরে দাঁড়ান তিনি দ্বিতীয় ম্যাচে। ক্রাইস্টচার্চে প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দিয়ে ইনিংস ব্যবধানে জয়ের ম্যাচে নেন মোট ৬ উইকেট। এতে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ৮ ধাপ এগিয়ে তিনে উঠলেন তিনি।

সিরিজে ৯ উইকেট নেওয়া বোল্ট এগিয়েছেন তিন ধাপ। কিউই এই পেসারের অবস্থান এখন ১২ নম্বরে। ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে ৪ উইকেট নেওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার ডুয়ানে অলিভিয়ের পুনরায় ফিরেছেন র‍্যাঙ্কিংয়ে, আছেন ২২তম স্থানে।


লুঙ্গি এনগিডি, মার্কো ইয়ানসেনও এগিয়েছেন র‍্যাঙ্কিংয়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভারতীয় হিসেবে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়া বোলিং উপহার দেওয়া ভারতের শার্দুল ঠাকুর ১০ ধাপ এগিয়ে এখন ৪২ নম্বরে। অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের চতুর্থ টেস্টে ভালো পারফরম্যান্স করে এগিয়েছেন স্কট বোল্যান্ড, ক্যামেরন গ্রিন, মার্ক উড।

টেস্ট বোলারদের তালিকায় আগের মতোই সবার ওপরে আছেন অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স। দুইয়ে ভারতের রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে টম ল্যাথাম দুই ধাপ এগিয়ে আছেন ১১তম স্থানে। বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ২৫২ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

প্রথম টেস্টে ১২২ ও দ্বিতীয় টেস্টে ১০৯ রানের ইনিংস খেলা ডেভন কনওয়ে ১৮ ধাপ উপরে উঠে এখন ২৯ নম্বরে। বাংলাদেশ সিরিজ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বলা রস টেইলর ক্যারিয়ার শেষ করলেন র‍্যাঙ্কিংয়ে ২৮ নম্বরে থেকে। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে ক্যারিয়ার সেরা চতুর্থ স্থান ও ৮৭১ রেটিং পয়েন্ট পেয়েছিলেন তিনি।


অ্যাশেজের সিডনি টেস্ট দিয়ে আড়াই বছর পর দলে ফেরা উসমান খাওয়াজা আবারও ঢুকেছেন র‍্যাঙ্কিংয়ে। জোড়া সেঞ্চুরি করে ম্যান অব দা ম্যাচ হওয়া বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান এখন ২৬ নম্বরে।

ওই টেস্টে জোড়া ফিফটি করা বেন স্টোকস ব্যাটসম্যানদের তালিকায় ৯ ধাপ এগিয়ে আছেন ১৮তম স্থানে। ১১৩ ও ৪১ রান করা জনি বেয়ারস্টোর উন্নতি ১৬ ধাপ।

ভারতের বিপক্ষে জোহানেসবার্গ টেস্ট জয়ে বড় অবদান রাখা দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক ডিন এলগার ফিরেছেন সেরা দশে। রান তাড়ায় ৯৬ রানের ম্যাচ জেতানো অপরাজিত ইনিংস খেলে তিনি এখন ঠিক ১০ নম্বরে। তার সতীর্থ টেম্বা বাভুমা এগিয়েছেন চার ধাপ।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে আগের মতোই সবার ওপরে মার্নাস লাবুশেন। দুই নম্বরে যথারীতি আছেন জো রুট। কেন উইলিয়ামসনকে টপকে তিনে উঠেছেন স্টিভেন স্মিথ। পাঁচে আছেন রোহিত শর্মা।

টেস্ট অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানে আসেনি পরিবর্তন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেসন হোল্ডার আছেন সবার ওপরে।

এই বিভাগের আরো খবর