এই দিন

শনিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৭   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৪৬

ফেসবুকে ‘নারী’ সেজে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেন তিনি

তরুণ কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০২০  

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নারী সেজে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মাসুক মিয়া ওরফে মাসুদ (২৮) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৪। গতকাল মঙ্গলবার রাতে নরসিংদী জেলার মনোহরদী থানা এলাকায় মনোহরদী পৌরসভা বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। র‍্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. সাজেদুল ইসলাম সজল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

র‍্যাব জানায়, র‌্যাব-৪ এর কাছে বিভিন্ন সময় অভিযোগ আসে যে, মেয়েদের নামে ফেক ফেসবুক আইডি খুলে সুন্দরী মেয়ের ছবি দিয়ে বিভিন্ন জনকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে নানাভাবে প্রলুব্ধ করে বিকাশের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ভুয়া আইডি ও প্রোফাইল পিকচার দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করে সেখানে সুন্দরী নারীর ছবি, বন্ধু হওয়ার আমন্ত্রণ করা হয় এবং একবার এই আমন্ত্রণে সাড়া দিলেই হয় মোবাইল নম্বর লেনদেন।

দীর্ঘ সময় ধরে হয় নারী কণ্ঠে বন্ধুত্বপূর্ণ আলাপ, প্রেম ও ভালোবাসার একপর্যায়ে বন্ধুর সঙ্গে দেখা করার জন্য তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওনা করেন। পথিমধ্যে দুর্ঘটনা, আবার কখনো হাসপাতালে ভর্তি, তাৎক্ষণিক মিটমাট করার জন্য প্রয়োজন ২৫/৩০ হাজার টাকা। কিন্তুু সঙ্গে এত টাকা নাই, তাই বন্ধুর শরণাপন্ন হতে হয়। বন্ধুও সরল বিশ্বাসে ভালোবাসার টানে বিকাশের মাধ্যমে কাঙ্খিত টাকা পাঠিয়ে দেন। তারপর থেকে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।
 
র‍্যাব আরও জানায়, এই প্রতারক কখনো ভিডিও কলে কথা বলেন না, তাতে ধরা পড়ে যাওয়ার ভয় থাকে। কণ্ঠ পরিবর্তন করে মেয়ের কণ্ঠে কথা বলে কখনো প্রবাসী সুরেলা নারী, কখনো পুলিশ অফিসার, কখনো মেয়ের মা, কখনো মেয়ের বোন সেঁজে নিপুণ অভিনয় করে প্রতারক বিকাশের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাব জানায়, অভিযুক্ত ডিজিটাল প্রতারক মাসুক মিয়া Soniya Akter keya নামে ফেক ফেসবুক আইডি খুলে Tanzim Mehezabin Khan Sneha নামক মেয়ের ছবি প্রোফাইল পিকচার ব্যবহার করে নিজেকে লন্ডন প্রবাসী পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ছেলেকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে বন্ধুত্ব স্থাপন করে। আবার কখনো ম্যাসেঞ্জারে, কখনো মোবাইলে সরাসরি কণ্ঠ পরিবর্তন করে মেয়ে কণ্ঠে কথা বলে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে প্রতারণা করে। নিরীহ ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে তিনি এ পর্যন্ত ১৫-২০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এই বিভাগের আরো খবর