বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯   ১২ মুহররম ১৪৪৪

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৯৪

আটা-ময়দা মিশ্রিত ২০ লাখ নকল ওষুধ জব্দ, গ্রেফতার ১০

নিজস্ব প্রতিবেদক  

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২২  

আটা ও ময়দা মিশ্রিত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রায় ২০ লাখ পিস নকল ওষুধ উদ্ধার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের কোতয়ালী জোনাল টিম। এসময় নকল ওষুধ তৈরির চক্রের মূলহোতাসহ ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার (৫ জুন) রাজধানীর মিটফোর্ড, কুমিল্লা নগরীর কাপ্তান বাজারের হিমালয় ল্যাবরেটরিস ও ঢাকার সাভার থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন-. মো. কবির হোসেন (৪৪), আইনুল ইসলাম (৩২), মো. মোরশেদ আলম শাওন (৩৫), আল আমিন চঞ্চল (৩৫), মো. সাগর (১৯), মো. আবির (২১), মো. রুবেল (২৩), মো. নাজিম উদ্দিন (৪২), মো. তৌহিদ (২৮) ও মো. পারভেজ (৩২)।

সোমবার (৬ জুন) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ডিবি প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

jagonews24

তিনি বলেন, গ্রেফতারদের কাছ থেকে ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানির প্যানটোনিক্স ২০ এমজি নয় লাখ ১৮ হাজার ৪৫৬ পিস, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের সেকলো ২০ এমজি চার লাখ ১০ হাজার ৪০০ পিস, দি একমি ল্যাবরেটরিজ কোম্পানির মোনাস ১০ এমজি ৫৮ হাজার ৫০০ পিসসহ আটটি দেশীয় কোম্পানির ওষুধ এবং আমেরিকার ব্রণসন কোম্পানির প্রায় ২০ লাখ পিস নকল ওষুধ উদ্ধার করা হয়।

হাফিজ আক্তার বলেন, ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক ওষুধ যখন থেকে ট্যাবলেট ফরমেটে আসলো তখন থেকেই প্রতারণার একটি দ্বার উন্মোচন হয়। কারখানাগুলোতে তাদের নিজস্ব ওষুধ বাদ দিয়েও প্রচলিত ওষুধের নকল করে বাজারে ছাড়তে থাকে। নামি ব্র্যান্ড ও ক্রেতা চাহিদা বিবেচনায়, গ্যাসের ওষুধ, ব্যথার ওষুধ ও বিভিন্ন অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ তারা নকল করে। আর এসব ওষুধ তৈরি হয় কুমিল্লার কাপ্তান বাজারে অবস্থিত হিমালয় ল্যাবরেটরিজ নামে একটি ইউনানি ও হারবাল ওষুধ কোম্পানিতে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের নামকরা আটটি ও আমেরিকার একটি কোম্পানির জনপ্রিয় ওষুধ তারা আটা, ময়দা ও অন্যান্য রাসায়নিক মিশিয়ে শুধু মোড়ক লাগিয়ে বাজারে ছাড়তো। এই চক্রটির মূলহোতা মো. কবির হোসেন ও মোরশেদ আলম শাওন নকল ওষুধ তৈরি করে। গ্রেফতার বাকিরা বিভিন্ন কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাজারজাত করতেন।

ডিবি প্রধান বলেন, ২০২১ সালের আগস্ট মাস থেকে এখন পর্যন্ত ডিবি পুলিশ ২০টি অভিযান চালিয়ে ৪৪ জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আমরা বিশেষ ক্ষমতা আইনে ১৪টি মামলা করেছি। এছাড়া গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে ডিএমপির কোতয়ালী থানায় মামলা করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর