মঙ্গলবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২২   মাঘ ১১ ১৪২৮   ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৬৪

ড. এস. এম. জাহাঙ্গীর আলমের রচিত ৪টি বই প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০২১  

বিশেষ অতিথি ছিলেন আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন, অ্যাটর্নি জেনারেল অব বাংলাদেশ, মোঃ সোহরাব হোসাইন, চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ সরকারী কর্মকমিশন (পিএসসি), গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। আলোচকবৃন্দদের মধ্যে ছিলেন- বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান মোঃ আফজাল হোসেন (সচিব), বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানী লিঃ এর চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ। সভাপতিত্ব করেন- মোঃ নুরুল হুদা মহাপরিচালক, বাংলা একাডেমী। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রশাসনিক পদে কর্মরত বিভিন্ন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং ৭১'এ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত পাঠ করেন ক্বারী মোঃ আব্দুল মমিন। শহীদদের উদ্দেশ্যে ১ মিনিট নিরবতা পালন ও জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। মুক্তধারা প্রকাশনার পক্ষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- প্রধান নির্বাহী, সহযোগী অধ্যাপিকা নিপা সাহা। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন বলেন- বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে ড. এস. এম. জাহাঙ্গীর আলমের চিন্তা, চেতনা, চেষ্টা বিরল।

তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে একতাবদ্ধ হয়ে সমাজসেবার কাজ করে আসছেন এবং তার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিভিন্ন বই সমূহ লেখালেখিও করেন। বাংলাদেশ সরকারী কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান মোঃ সোহরাব হোসাইন বলেন- সরকারী চাকুরীর পাশাপাশি ড. জাহাঙ্গীরের সমাজসেবার যে সকল কার্যক্রম প্রতীয়মান তা আসলেই প্রশংসার দাবীদার। তাঁর এই সমাজসেবা ও লেখনি মনোভাব তরুনদের মাঝে উদ্দীপনা যোগাতে সাহায্য করবে।

সর্বশেষ প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন- মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত আমাদের এই দেশ। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠনে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা বর্তমান সামাজিক, অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখছে।

তারই ধারাবাহিকতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে মুক্তিযোদ্ধা কর্মকর্তা ড. এস. এম. জাহাঙ্গীর আলম এর সমাজসেবা কর্মকান্ডের পাশাপাশি তাঁর লেখা নতুন ৪টি বইয়ের জ্ঞান আহরণের মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম সু-দৃঢভাবে গড়ে উঠবে বলে আমি মনে করি। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর মর্মকথা (৩য় খন্ড) ও সমসাময়িক সাধারণ জ্ঞান বই দুটি নতুন প্রজন্মের কিশোর-কিশোরিদের জ্ঞান বিকাশে এবং বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

আমি মনে করি ড. এস. এম. জাহাঙ্গীর আলম এর প্রকাশনা উৎসবের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ প্রজন্মেকে সঠিক দিক-নির্দেশনা প্রদান করবে। পরিশেষে অনুষ্ঠানের সভাপতি মোঃ নুরুল হুদা, মহাপরিচালক, বাংলা একাডেমী বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশ স্বাধীনতা এবং বঙ্গবন্ধু একই সূত্রে গাঁথা এক মহাকাব্য, এই মহাকাব্যের মহা নায়ক জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই বলে সভাপতি অনুষ্ঠানের সকল বীর মুক্তিযুদ্ধা নেতৃবৃন্দ ও অন্যান্য অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর