বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯   ১২ মুহররম ১৪৪৪

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৮২

কোহলি-স্মিথ-উইলিয়ামসনকে ছাড়িয়ে গেলেন রুট

 অনলাইন ডেস্ক 

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২২  

কিউই বোলার সাউদির বলে চার মেরে লর্ডস টেস্ট জয় করে নিলেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক জো রুট। নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২৭৭ রানের টার্গেট ৫ উইকেটে জিতে নেয় ইংলিশরা। ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান রুট। নিউজিল্যান্ডদের পেছনে ফেলার দিন রুট একই সঙ্গে পেছনে ফেললেন কোহলি, স্মিথ ও উইলিয়ামসনকেও।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডস টেস্টের প্রথম দিনে ১৭ উইকেটের পতন দেখা মেলে। তবে টেস্টের চতুর্থ দিনে কোনো উইকেটেরই পতন হয়নি। মেঘাচ্ছন্ন কন্ডিশনে পেসারদের ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগেই প্রতি-আক্রমণে ম্যাচ বের করে নিয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা জো রুট। ক্যারিয়ারের ২৬তম শতক হাঁকিয়ে ম্যাচ তো জিতিয়েছেনই, সঙ্গে ছুঁয়েছেন অসাধারণ এক মাইলফলক। এই লর্ডসেই ১০ হাজারি ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন ইংলিশদের সাবেক এই অধিনায়ক।

এই ১০ হাজারি ক্লাবে যোগ দেয়ার দিন রুট এগিয়েও গেলেন সেই 'ফ্যাব ফোর'এর লড়াইয়ে। বিরাট কোহলি, স্টিভেন স্মিথ, জো রুট এবং কেন উইলিয়ামসনকে 'ফ্যাব ফোর' ব্যাটসম্যানের খেলাব দেয়া হয়েছে। এক সময় যেখানে একজন অন্যজনকে পিছু ফেলার লড়াইয়ে ছিলেন, সেখানে সবাইকে পেছনে ফেলে বেশ এগিয়ে গেলেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক। 

২০২১ সালের জানুয়ারি মাস থেকে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত পরিসংখ্যান দেখলেই তা বোঝা যাবে। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে এ চার ব্যাটারের রানের দিকে এগিয়ে ছিলেন রুটই। তবে তা ছিল সামান্য। ১৭ সেঞ্চুরিকে সঙ্গী করে সেসময় টেস্টে রুটের রান ছিল ৭৮২৩। দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন স্মিথ। তার রান ছিল ৭৪৪৯। 

৭৩১৮ রান নিয়ে তিনে ছিলেন কোহলি আর চারে উইলিয়ামসন। ২৪ শতকে কিউই অধিনায়কের রান ছিল ৭১১৫। তবে এই দেড় বছরে সবাই এগিয়েছে। তবে রুট একটি বেশিই এগিয়ে গেছেন। ২০২২ সালের জুন মাসে ২৬ শতকে রুটের রান দাঁড়িয়েছে ১০,০১৫। দ্বিতীয় স্থানে চলে এসেছেন কোহলি। ৮০৪৩ রান নিয়ে এ লড়াইয়ে ভারতের অধিনায়ক পিছু ফেলেছেন স্মিথকে। ৮০১০ রান নিয়ে তিনে আছেন স্মিথ। আর ৭২৮৯ রান নিয়ে চারেই পরে আছেন উইলিয়ামসন। তবে কিউই এই ব্যাটার ইনজুরির কারণে অনেকগুলো টেস্ট ম্যাচ খেলতে পারেননি। 

এই দেড় বছরে রুট কতটা এগিয়ে গেছে তা দেখাই গেল। শুধু রানেই নয়, শতকেও এই ফ্যাব ফোরের লড়াইয়ে জয়ী রুট। ২০২১ সালে রুটের শতক ছিল ১৭টি। এখন তার সতক ২৬টি। যেখানে বাকি তিন ব্যাটসম্যান এই দেড় বছরে একটিও শতকের দেখা পাননি। এমন লড়াইয়ে এগিয়ে থাকার দিন সাবেক অজি অধিনায়ক মার্ক টেলর আরেকটি ভবিষ্যদ্বাণী করে রাখলেন। স্কাই স্পোর্টসে ধারাভাষ্য দেয়ার সময় তিনি বলেন, শচীন টেন্ডুলকারকে ছাড়িয়ে যাবেন রুট। টেস্টে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক শচীন। টেস্টে তার রান সংখ্যা ১৫,৯২১। যদিও তাকে ছুঁতে রুটের অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। তবে রুটের বয়সও মাত্র ৩০। ফলে সে যদি আরও পাঁচ-ছয় বছর খেলেন, তবে তা করাও সম্ভব। 

এদিকে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে ১৪তম ক্রিকেটার হিসেবে ১০ হাজারি ক্লাবে জায়গা করে নেন রুট। অ্যালিস্টার কুকের পর দ্বিতীয় ইংলিশ ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে ১০ হাজার রান করেছেন তিনি। পাশাপাশি ১০ হাজার রান সংগ্রহ করতে রুটের লেগেছে ৯ বছর ১৭১ দিন। তার চেয়ে দ্রুততম সময়ে আর কেউই পারেনি এ মাইলফলক ছুঁতে। এর আগে দ্রুততম সময়ে এই মাইলফলক ছোঁয়ার কীর্তি ছিল অ্যালিস্টার কুকের। তার সময় লেগেছিল ১০ বছর ৮৭ দিন।          

এই বিভাগের আরো খবর