বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১   অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৮   ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
১০

চেক জালিয়াতির ঘটনায় যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সচিব ওএসডি

তরুণ কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২১  

সম্প্রতি বোর্ডের কয়েক কোটি টাকার চেক জালিয়াতি ঘটনা ধরা পড়ার মধ্যে মঙ্গলবার তাদেরকে প্রত্যাহার করলো শিক্ষামন্ত্রণালয়। নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে যশোর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডক্টর আহসান হাবিব এবং সচিব পদে শহীদ এ.এইচ.এম কামরুজ্জামান সরকারি ডিগ্রি কলেজ,রাজশাহীর ব্যবস্থাপনা বিষয়ের অধ্যাপক আব্দুল খালেক সরকারকে পদায়ন করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব ডক্টর শ্রীকান্ত কুমার চন্দ স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ পদায়ন হয়। যার স্মারক নম্বর ৩৭.০০.০০০০.০৬৭.০২.০০৪.২০১৬-৩২৭। অবিলম্বে এ আদেশ কার্যকর হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে, চেক জালিয়াতির ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মোল্লা আমীর হোসেন অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটি গঠন করেন। এই কমিটি দীর্ঘ তদন্ত শেষে সম্প্রতি রিপোর্ট দিয়েছেন চেয়ারম্যানের কাছে। এই অবস্থার মধ্যে প্রত্যাহার করা হলো চেয়ারম্যান ও সচিবকে। যশোর শিক্ষাবোর্ডে প্রথম দফায় আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা ধরা পড়ার পর পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটিকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দেয়ার কথা ছিল।

পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয় কলেজ পরিদর্শক কেএম রব্বানীকে। এছাড়া, সদস্যরা ছিলেন বিদ্যালয় পরিদর্শক ডক্টর বিশ্বাস শাহীন আহম্মেদ, উপপরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) ইমদাদুল হক, উপসচিব (প্রশাসন) জাহাঙ্গীর আলম ও সোনালী ব্যাংকের একজন এজিএম।

এদিকে, কোটি কোটি টাকা জালিয়াতি ঘটনার দায় লিখিতভাবে স্বীকার করেছেন শিক্ষাবোর্ডের হিসাব সহকারী আব্দুস সালাম। আত্মসাতের বিষয়টি স্বীকার করে তিনি পর্যায়ক্রমে টাকা ফেরত দেয়ার অঙ্গীকার করেছেন।

এই বিভাগের আরো খবর