বৃহস্পতিবার   ৩০ জুন ২০২২   আষাঢ় ১৭ ১৪২৯   ৩০ জ্বিলকদ ১৪৪৩

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
২৮

কেকে`র ময়নাতদন্তের রিপোর্টে যা মিলল

নিজস্ব প্রতিবেদক  

প্রকাশিত: ২ জুন ২০২২  


গান গাইতে গাইতেই না ফেরার দেশে চলে গেলেন সংগীত শিল্পী কেকে। রেখে গেলেন অনেক প্রশ্ন আর বিতর্ক। তার অস্বাভাবিক মৃত্যুর জন্য কলকাতার নিউমার্কেট থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

এরই মধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে উল্লেখ রয়েছে যে, হৃদযন্ত্রজনিত সমস্যা ছিল কেকের। তবে রাসায়নিক বিশ্লেষণের পর পাওয়া যাবে চূড়ান্ত রিপোর্ট। এখন পর্যন্ত ময়নাতদন্তের রিপোর্টে অস্বাভাবিক কিছু পাওয়া যায়নি। কিন্তু কেকের মৃত্যুর মূল কারণ জানা যাবে চূড়ান্ত রিপোর্টে। এমন তথ্য দিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এবিপি  আনন্দ।
সোমবার (৩০ মে) ও মঙ্গলবার (৩১ মে) কলকাতার নজরুলমঞ্চেই ঠাকুরপুকুরের বিবেকানন্দ কলেজের অনুষ্ঠানে গান গেয়েছিলেন কেকে।

স্টেজ পারফর্ম করার সময় অসুস্থ বোধ করেন ৫৪ বছর বয়সী কেকে। হোটেলে ফিরে যাওয়ার পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইতোমধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে অনুষ্ঠানের বেশ কিছু ভিডিও, তা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠছে। অনুষ্ঠানের মাঝে তাকে অস্বস্তিতে দেখা গিয়েছে। তিনি বারবার ঘাম মুছছিলেন। উদ্যোক্তাকে স্পট লাইট বন্ধ করতে বলেন। ইশারায় বলেছিলেন, এসি কাজ করছে না।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কেকে ছিলেন অত্যন্ত চনমনে। রীতিমতো মঞ্চ দাঁপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি। কিন্তু সময় যত এগিয়েছে, তার শারীরিক ভঙ্গিমায় কিছুটা অস্বস্তি লক্ষ্য করা গেছে। বারবার তাকে চলে যেতে দেখা গেছে মঞ্চের পেছনের দিকে। সেখানে টেবিলে রাখা রুমাল দিয়ে ঘাম মুছছিলেন। পানি খাচ্ছিলেন বারবার।

একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, রুমাল দিয়ে ঘাম মুছে, পানি খেয়ে ফের চুল ঝাঁকিয়ে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় পরের গানটি শুরু করেছিলেন তিনি। পাশ থেকে মঞ্চে থাকা একজন হিন্দিতে বলে ওঠেন, ‘ভীষণ গরম।’ তাতে হেসে সম্মতি জানাতে দেখা গিয়েছে কেকে-কে। এরপরই ইশারায় উদ্যোক্তাদের বলেন, আলো নিভিয়ে দিতে।

এই বিভাগের আরো খবর