বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১   অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৮   ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
২৫

কাবিন বাণিজ্য এক নারী একাধিক যৌতুকের মামলার বাদী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২১  

তার নাম মোসা: নাজমা আক্তার স্বর্ণা, পিতা:মৃত আবুল কাসেম,সাং: উত্তরসতানন্দী কেটিসি, দাউদকান্দি, কুমিল্লা। বিগত ২০১৬ ইং সনে জৈনক হুমায়ুন কবির, পিতা: মৃত- ফজলুল হক, সাং: ছোট আলমপুর, দেবিদ্বার, কুমিল্লা, নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধিত ২০০৩ এর ১১গ ধারায় মামলা করিয়া ৯,০০,০০০ টাকার বিনিময়ে বিগত ২২/০৮/২০১৬ ইং তারিখে বিজ্ঞ বিচারিক জনাব আজীজ আহমেদ ভূইয়া’র কোর্টে বাদীনি টাকা বোঝিয়া পেয়েছে মর্মে উক্ত তারিখে অত্র মামলা নিষ্পত্তি হয়। যাহার নং নারী শিশু ৪০১/১৬ ইং।

আমাদের জানামতে, উল্লেখিত কাবিনের পরিমাণ ৫,০০,০০০ টাকা। আপোষ নিষ্টত্তি হয় ৯,০০,০০০ টাকার মধ্যে। উক্ত মোকদ্দমায় বাদিনি নাজমা আক্তার স্বর্ণা একখানা ভোটার আইডি কার্ড দখিল করেন। যাহাতে তাহার স্বামীর নাম উল্লেখ্য আছে হুমায়ুন কবির, জন্ম তারিখঃ ০৮/০৬/১৯৮২ ইং।

পরবর্তীতে উল্লেখিত নাজমা আক্তার স্বর্ণা বিগত ০১/০৮/২০১৭ ইং তারিখে নিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৪নং বিচারিক আদালতে সি.আর১৯৯/১৭ ইং মোকদ্দমা যাহারধারা যৌতুক নিরোধনের ৪ধারা। জনৈক মোঃ নওশাদ আলী, পিতাঃ হাজী মোঃ আজিজুর রহমান, সাং- ফতা, থানাঃ পিরগাছা, জেলাঃ রংপুর এর বিরুদ্ধে উল্লেখিত তারিখে ১,০০,০০০ টাকার একখানা কাবিন মামলা দাখিল করে উক্ত নওশাদ আলীকে ১ বছরের সশ্রম কাড়াদন্ড ও ১০,০০০ টাকার অর্থদণ্ড জরিমানা প্রদান করেন।

উল্লেখিত মোকদ্দমায় বাদিনি নাজমা আক্তার স্বর্ণা আরো একখানা ভোটার আইডি কার্ড দাখিল করেন যাহাতে তাহার স্বামীর নামঃ নওশাদ আলী, জন্ম তারিখঃ ০৯/০৬/১৯৮২ ইং। পরবর্তীতে উল্লেখিত মোকদ্দমায় নাজমা আক্তার স্বর্ণাকে কাবিনের সমপরিমাণ টাকা পরিশোধ করিয়া বিগত ০৬/০৮/২০১৯ ইং তারিখে ফৌঃ আঃ ২৮০/১৮ এর মোকদ্দমায় আপিল মূলে রেহায় পায়।

দাউদকান্দি থানার মামলা নং ১,তাংঃ ১৪/১০/১৭ ইং যাহার জি.আর ২১/২০১৭ ধারা আইন শৃঙ্খরা বিঘœকারী অপরাধ দ্রুত বিচার আইন ২০০২ সংশোধনী ২০০৯ মপা ৪ ও ৫ ধারায় এহজার নামীয় ২নং আসামী নাদিম মাহমুদ মুন্না, পিতাঃ মোহন মোল্লা,মাতাঃ নাজমা আক্তার স্বর্ণা, সাংঃ বারাগাও, মোল্লাবাড়ী, দাউদকান্দি, কুমিল্লা। উল্লেখিত মতে জানা গেল নাজমা আক্তার স্বর্ণার আরো একজন স্বামীর অস্তিত্ব রয়েছে। বিগত ১৩/০৯/২১ ইং তারিখে নাজমা আক্তার স্বর্ণা বাদী হয়ে বিজ্ঞ নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ০৩ এর আদালতে ধারা ১১/গ/৩০ জৈনক মোঃ হুমায়ুন কবির,পিতা- মৃত্যঃ ফজলুল হক, সাংঃ ছোট আলমপুর, দেবিদ্বার, কুমিল্লা এর বিরুদ্ধে ৫০,০০,০০০ টাকার কাবিন নামা দাখিল করিয়া আরো একখানা মিথ্যা মামলা দায়ের কারেন।

যাহা বর্তমানে দাউদকান্দি পৌরসভা মেয়র তদন্তপূর্বক রিপোর্ট প্রদান করবেন বলে জানা গেছে। উল্লেখিত মোকদ্দমার আসামী হুমায়ুন কবিরের সাথে কথা বলে জানা যায় বিগত ২২/১৮/২০১৬ ইং তারিখে নারী শিমু ৪০১/১৬ এর মোকদ্দমায় নাজমা আক্তার স্বর্ণার সহিত আমার যাবতীয় সম্পর্কিত দেনা-পাওনা বিজ্ঞ জর্জ সাহেবের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছে। উক্ত মহিলা একজন প্রতারক, কাবিন ব্যবসায়ী, কাবিনের জালে একাধিক পুরুষকে ফাসিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করাই হচ্ছে এই মহিলার কাজ। অত্র ৫০,০০,০০০ টাকার কাবিনের বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। আমি ১০,০০,০০ টাকা দিলে এই মামলা উঠিয়ে নিবে বলে মুঠোফোনে আমার কাছে প্রস্তাব রাখে। আমি তদবিষয়ে জালজালিয়াতির একখানা মামলা দায়ের করেছি। বর্তমানে আমার মোকদ্দমা তদন্তনাধীন রয়েছে। যাহার নং সি.আর৪৬৭/২১ধারা ৪২০/৪৬৫/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/১০৯ আমার মোকদ্দমাটি পুলিশের উচ্চতর সংস্থা তদন্ত করতেছে। আমি তাহার কাবিনের ব্যবসা চিরতরে বন্ধ করা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যাতে করে কোন অসহায় পুরুষ, পরিবার তার এমন ঘৃণ কার্যে যাতে হয়রানি না হয়। আমার জানামতে তাহার আরো বেশ কয়েকজন স্বামীর অস্তিত্ব রয়েছে বলে জানা যায়। কিন্তু তাদের উল্লেখিত কোন প্রমাণপত্র সংগ্রহের বাইরে থাকায় নাম প্রকাশ করা গেল না।

এই বিভাগের আরো খবর