শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
১১৫

ভারতে ১১ লাখ অনাকাঙ্ক্ষিত সন্তান প্রসবের আশঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২০  

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে নাকাল গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্যসেবার বেহাল দশা, বিপর্যস্ত পরিকাঠামো। বর্তমানে এই ভাইরাস সংক্রমণের ‘হটস্পটে’ পরিণত হয়েছে এশিয়ার দেশ ভারত।

করোনার এই তাণ্ডবের মধ্যেই উদ্বেগ আরও বাড়াল ‘ফাউন্ডেশন অব রিপ্রোডাক্টিভ হেলথ সার্ভিসেস ইন্ডিয়া’-এর সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষার প্রতিবেদনে।

উল্লেখ্য, ‘ফাউন্ডেশন অব রিপ্রোডাক্টিভ হেলথ সার্ভিসেস ইন্ডিয়া’ ভারতে বেসরকারি ক্ষেত্রে ‘ক্লিনিক্যাল ফ্যামিলি প্ল্যানিং সার্ভিস’ দেওয়ার বৃহত্তম একটি সংস্থা। এই সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, বিগত ৫-৬ মাস ধরে চলা করোনা মহামারীর থাবায় বিপর্যস্ত ভারতের জন্মনিয়ন্ত্রণ সেবা।

লকডাউনের জেরে দেশটিতে প্রায় ২.৫ কোটি দম্পতি সরকারি জন্মনিরোধক সেবার সুবিধা নিতে পারেনি। ফলে তৈরি হয়েছে অবাঞ্ছিত প্রসবের আশঙ্কা! সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, পরবর্তী কয়েক মাসে ভারতে প্রায় ১১ লাখ অনাকাঙ্ক্ষিত সন্তান প্রসবের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, এই পরিস্থিতিতে আগামী বছরের শুরুতে ভারতে অতিরিক্ত প্রায় ১৮ লক্ষ গর্ভপাত হবে, যার মধ্যে প্রায় ১০ লাখ গর্ভপাতই হবে ঝুঁকিপূর্ণ। অর্থাৎ, গর্ভপাতের সময় মায়েরও প্রাণ সংশয় হতে পারে।

মাস খানেক আগে ইউনিসেফ আশঙ্কা প্রকাশ করে জানায়, করোনার জেরে বেহাল স্বাস্থ্যসেবা, বিপর্যস্ত পরিকাঠামোর ফলে আগামী ছয় মাসে মৃত্যু হতে পারে ৫৬ হাজার ৭০০ জন মায়েরও। ‘ফাউন্ডেশন অব রিপ্রোডাক্টিভ হেলথ সার্ভিসেস ইন্ডিয়া’-র সমীক্ষার রিপোর্টেও তেমনই ইঙ্গিত মিলেছে। সূত্র: জিনিউজ

এই বিভাগের আরো খবর