এই দিন

সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১   মাঘ ১১ ১৪২৭   ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৮০

টেংগনমারী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সুনাম অটল রেখেছেন প্রধান শিক্ষক

মোঃ নাঈম শাহ্, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারি ২০২১  

নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার ছায়াঘেরা প্রকৃতির মনোমুগ্ধকর পরিবেশে গড়ে উঠেছে টেংগনমারী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষক মোঃ আশেকুর রহমান গত ২০১৪ সালের ১৮ই মার্চ যোগদানের পর থেকেই তার অক্লান্ত প্রচেষ্টায় নানা সাফল্যের দেখা পেয়েছে বিদ্যালয়টি। জলঢাকা উপজেলার প্রথম ডিজিটাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে এটি অন্যতম। জলঢাকার বিদ্যালয় গুলোর মধ্যে এই স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আইডি কার্ডের মাধ্যমে ডিজিটাল পদ্ধতিতে হাজিরা নেওয়া হয়। বিদ্যালয় সূত্রমতে, ২০১৯ সালে জেলা ও উপজেলা স্কুল পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুনাম অর্জন করে এই বিদ্যালয়।

সারেজমিনে স্কুলে গিয়ে জানা যায়, সম্প্রতি সেই সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য কতিপয় দুষ্কৃতিকারিরা নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে। কিছু নামধারী সাংবাদিকেরা নিজের স্বার্থসিদ্ধি হাছিল না হওয়ায় বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে বলে নানা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মোঃ আশেকুর রহমান।

বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে আসা শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বললে তারা জানান, আমরা শিক্ষাবোর্ডের নোটিশ দেখে আমাদের বিদ্যালয়ের ভর্তি ফি মিলাচ্ছি। সরকারি ফি অনুযায়ী আমাদের বিদ্যালয়ের ভর্তি ফি নেওয়া হচ্ছে। এমন কি আমাদের মধ্যে গরিব শিক্ষার্থীদের টাকা মওকুফ করে দিচ্ছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

উক্ত বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর খ শাখার মোঃ রোকনুজ্জামান রোকন, মোঃ ফিরোজ আরাফাত ও ৭ম শেণীর শিক্ষার্থী মোঃ আব্দুল হাকিম এর সাথে বললে তারা জানান, আমাদের বিদ্যালয় থেকে কোনো বেশি টাকা আদায় করা হচ্ছে না । সরকার যে ফি নির্ধারণ করেছে সেই ফি দিয়ে আমরা স্কুলে ভর্তি হয়েছি।

উক্ত বিজ্ঞান বিভাগের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মোছাঃ সুমাইয়া আক্তার সিমু এর সাথে যোগাযোগ করলে সে জানায়, আমার পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা খুব খারাপ। আমার পরিবার আমার ভর্তির পুরো ফি দিতে পারছিলাম না। আমাদের প্রধান শিক্ষককে এ বিষয়ে জানালে তিনি আমাকে ভর্তি ফি কিছু মওকুফ করে দেয়।

টেংগনমারী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আশেকুর রহমান অভিযোগ করে বলেন,কিছু দুষ্কৃতিকারিরা আমার প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে এবং বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়াতে যে নিউজগুলো ছাপানো হয়েছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা বানোয়াট। 

এই বিভাগের আরো খবর