সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩   মাঘ ১৬ ১৪২৯   ০৮ রজব ১৪৪৪

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৬১

‘জুডিসিয়াল ম্যাজিসস্ট্রেটরা অনেক বেশি দ্বায়িত্বশীল ও পরিশ্রমী’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২৩  

জেলা ও দায়রা জজ আদীব আলী

জেলা ও দায়রা জজ আদীব আলী

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ মোহা. আদীব আলী
বলেছেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে মামলা দায়ের তুলনায় নিষ্পত্তি
সন্তোষজনক। পুলিশসহ অংশীদারি সব প্রতিষ্ঠান ও
ম্যাজিস্ট্রেটরা একে অপরের প্রতি সম্মান রেখে নিজেদের
এখতিয়ারভূক্ত কাজগুলো দ্বায়িত্বের সঙ্গে করছেন বলেই মামলা
নিষ্পত্তি সম্ভব হচ্ছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে কর্মরত
জুডিসিয়াল ম্যাজিসস্ট্রেটরা অনেক বেশি দ্বায়িত্বশীল ও
পরিশ্রমী। আদালতের নির্ধারিত সময়ের বাইরেও তারা ১৬৪ ধারায়
আসামীদের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী গ্রহণ করে থাকেন।
তাদের কর্মদক্ষতার কারণে বিভিন্ন মামলা যথাসমেয় নিষ্পত্তি
হচ্ছে। বিচার সংশ্লিষ্টরা নিজেদের কাজগুলো সময় মতো করলে
মামলা নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আদালত দৃষ্টান্ত স্থাপন
করবে।
পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি সম্মেলন বিষয়ে জেলা ও দায়রা জজ বলেন,
পুলিশসহ অংশীদারি সব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেটদের
বিচার সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা নিয়ে আলোচনা ও
সমাধানের পথ বের হয়। বিচার বিভাগ সব অংশীদারের সঙ্গে
আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের ন্যায়বিচার পাওয়ার
অধিকার নিশ্চিত করা হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জের চিফ
জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কনফারেন্স রুমে শনিবার

আয়োজিত ‘পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি সম্মেলন-২০২৩’ অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সম্মেলনে
চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ মোহা. আদীব আলী
প্রধান অতিথি ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চীফ
জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কুমার শিপন মোদক। সম্মেলনে
সঞ্চালনা করেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো.
হুমায়ূন কবীর।
সভায় পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিব, সিভিল সার্জন
ডাঃ মো. মাহমুদুর রশিদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পাপিয়া
সুলতানা ও পিপি নাজমুল আজম উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সভায়
আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির নেতারা,
র‌্যাব, বিজিবি, বিভিন্ন থানার ওসিসহ বিচার বিভাগের
সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মকর্তারা।
সম্মেলনে সমন জারী, পুলিশ কর্তৃক মামলায় সা¶ী
উপস্থিতকরণ, আদালতে যাওয়ার পথে এবং আদালত চত্বরে সা¶ীদের
নিরাপত্তা, সময়মত ময়না তদন্ত প্রতিবেদন, বিচারক ও
ম্যাজিস্ট্রেটদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা, বিচারাধীন আসামীদের জেল-
হাজত থেকে আদালতে সময়মত উপস্থিতকরণ, পুলিশ-
ম্যাজিস্ট্রেসীর মধ্যে সমন্বয়, মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য
গ্রহণীয় পদ¶েপসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।
শেষে সিজেএম কুমার শিপন মোদক সম্মেলনে হাজির হওয়ায়
উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এই বিভাগের আরো খবর