বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৩ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
প্রধানমন্ত্রী ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন মঙ্গলবার দাবি না মানলে বিদ্যালয়ে তালা লাগাবে প্রাথমিকের শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রী রাজশাহী যাচ্ছেন রোববার লাকসামে কিশোর গ্যাং এর ৬ সদস্য গ্রেফতার খাল উদ্ধারের পর চালু হবে ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট : তাজুল ইসলাম ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ এখন ঢাকায় শেখ হাসিনার একান্ত প্রচেষ্টায় ৫০০ মডেল মসজিদ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নতুন ডিএমপি কমিশনারের শ্রদ্ধা
৬৫৯

উড়ন্ত বিমানের ভেতর নোয়াখালীর তরুণের অনৈতিক কাজ!

তরুণ কন্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯  

উড়ন্ত বিমানের ভেতর- মালয়েশিয়া থেকে ফেরার পথে উড়ন্ত বিমানের ভেতর অনৈতিক কাজের দায়ে বাংলাদেশি এক তরুণকে আটক করা হয়েছে। গত শনিবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা তাকে আটক করেন।মালয়েশিয়া ভিত্তিক কয়েকটি সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়েছে, ২০ বছর বয়সী ওই অভিযুক্ত বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার সন্তান বলে তার সঙ্গে থাকা পাসপোর্ট থেকে জানা গেছে। সে মালয়েশিয়ার সাইবারজায়া অঞ্চলের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

ওইসব প্রতিবেদন থেকে আরো জানা যায়, সে মালয়েশিয়া থেকে ঢাকাগামী ফ্লাইট ওডি১৬২ বিমানে করে দেশে ফিরছিলো।৩৯ হাজার ফুট উচ্চতায় উড়ার সময় বিমানের টয়লেটে যায় সে। কিন্তু টয়লেট থেকে খালি গায়ে বের হয়ে নিজের আসনে বসে। তার বিরুদ্ধে বিমানকর্মীর গায়ে হাত তোলার অভিযোগও পাওয়া গেছে।বিমানের ভেতর থাকা প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে মালয়েশিয় পত্রিকা ‘দ্য সান ডেইলি’ শনিবার রাতে মালিন্দো এয়ারওয়েজের ওডি-১৬২ ফ্লাইটে কুয়ালালামপুর থেকে ঢাকায় আসছিল ফ্লাইটটি।

ফ্লাইট ছাড়ার কিছুক্ষণ পর দিদার আলী ল্যাপটপে উচ্চ শব্দে পর্নো ভিডিও দেখছিল। কিছুক্ষণ পর সে তার শরীরের কাপড় খুলে ফেলে। কেবিন ক্রু’রা তাকে জামা পড়তে বললে সে কথা শোনেনি। এর কিছুক্ষণ পর বিমানের টয়লেটের সামনে এক গৃহবধূকে হয়রানি করেন।দ্য সান আরও লিখেছে, হয়রানি ও হস্তমৈথুন করেই দিদার ক্ষান্ত হননি। সে কেবিন ক্রু’দের দিকে কয়েকবার তেড়ে আসেন, কখনো সিট থেকে উঠে দাঁড়িয়েছেন, ককপিটের দরজার সামনে হেঁটেছেন। ৩ ঘণ্টা ৫০ মিনিটের ফ্লাইটে যাত্রীরা এক ধরনের আতঙ্কের মধ্যে ছিলেন।

ছেলেটির পরিচয় সম্পর্কে বিমানবন্দরের থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাঈদ জানান, দিদার আলী মাহমুদ উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের বাসিন্দা। সে ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে।বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূরে আযম মিয়া বলেন, ‘তাকে প্রসিকিউশন দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন উল্লেখ করে হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।’

যদিও এসব কাণ্ডের পর বিমানকর্মীদের কাছে ক্ষমা চায় সে। কিন্তু তারপরও স্বাভাবিক নিয়মে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানে অবতরণের পর ওই বিমানের কর্মকর্তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করে বিমানবন্দর পুলিশ।বলা হচ্ছে যে, সে বিমানে চড়ার অনেকগুলো আইন ভঙ্গ করেছে। বর্তমানে সে পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। তার পাসপোর্ট জব্দ করা হয়েছে। তবে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে কিনা জানা যায়নি। ককোনাট কেএল, সেইস ডটকম, হার্ডওয়্যার জোন।

এই বিভাগের আরো খবর