শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২   আষাঢ় ১৬ ১৪২৯   ০১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

ছেলেদের চুলের যত্ন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত : ০৩:৫৫ পিএম, ২৬ জুন ২০১৯ বুধবার

ছেলে হোক আর মেয়ে-চুলের যত্ন সবার জন্য প্রয়োজন। ছেলেদের তো নিয়মিতই নানা কাজে বাইরে যেতে হয়। ফলে রোদ, ধুলাবালি ও ঘামে চুল রুক্ষ হয়ে পড়া, খুশকি হওয়া, গোড়া নরম হয়ে যাওয়া, চুল পড়াসহ নানা সমস্যায় পড়তে হয় তাদের। তাই তাদেরও চুলের যত্ন নিতে হবে সঠিকভাবে। এ বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন বিন্দিয়ার রূপবিশেষজ্ঞ শারমিন কচি। তার পরামর্শ নিয়ে লিখেছেন মায়িদা করিম

নিয়মিত শ্যাম্পু : চুল পরিষ্কার রাখতে নিয়মিত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। শ্যাম্পু ব্যবহারের সময় এর সঙ্গে একটু পানি মিশিয়ে নিন। এবার ওই শ্যাম্পু চুলের গোড়ার কাছাকাছি লাগিয়ে আলতো করে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

কন্ডিশনিং : ছেলেদের চুলেও কন্ডিশনার ব্যবহার করা ভালো। এতে চুল উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত থাকে। কন্ডিশনার চুলের গোড়ায় লাগাবেন না। এতে চুলের গোড়া নরম হয়ে যায়। বাজারের কেনা কন্ডিশনারের চেয়ে প্রাকৃতিক কন্ডিশনার চুলের জন্য বেশি উপকারী। এ ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন চায়ের লিকার। এক মগ চায়ের লিকার ঠান্ডা করে ছেঁকে শ্যাম্পু করার পর তা দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

উজ্জ্বলতা বাড়াতে : ধুলাবালি ও বাতাসের আর্দ্রতায় অনেকের চুলই নিষ্প্রাণ ও অনুজ্জ্বল হয়ে পড়ে। উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে শ্যাম্পু করার আগে লেবুর রসের সঙ্গে পানি মিশিয়ে চুল ভিজিয়ে নিন। কালোজিরা কিংবা জলপাই তেল গরম করে লাগালেও চুল উজ্জ্বল ও মজবুত হয়।

খুশকি দূর করতে : চুল নিয়মিত পরিষ্কার না করলে খুশকি হতে পারে। আবার অন্যের চিরুনি, ব্রাশ, তোয়ালে ব্যবহারেও খুশকি হতে পারে। তাই এগুলো আলাদা ও পরিচ্ছন্ন রাখুন। আপনার ব্যবহৃত চিরুনি মাঝে মধ্যে ডেটল বা স্যাভলন দিয়ে ধুয়ে নিন। এতেই খুশকি হওয়ার আশঙ্কা অনেক কমে যাবে। খুশকি দূর করতে একদিন পর পর চুলে খুশকি প্রতিরোধক শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

চুল পড়া রোধে : দুশ্চিন্তা, স্ট্রেস, কাজের চাপ বেশি থাকলে অনেক সময় চুল বেশি পড়ে। তাই যতটা সম্ভব এগুলো থেকে দূরে থাকুন। পর্যাপ্ত শাকসবজি ও ফলমূল খেলে এবং শারীরিক পরিশ্রম করলে চুল পাকা ও পড়া অনেকটাই কমে যাবে। চুল পড়া কমাতে নারিকেলের দুধ ও অর্ধেক পাতিলেবুর রস মিশিয়ে চুলে লাগালেও উপকার পাওয়া যাবে। এ ছাড়া নিয়মিত ব্যায়াম করুন। এগুলো ছাড়াও চুল ভালো রাখতে ছেলেরা প্রাকৃতিক কিছু উপায় বেছে নিতে পারেন।

তা হলো-কলার প্যাক : একটি পাকা কলা পেস্ট করে এর সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু ও এক টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে চুলে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু করে ফেলুন। চুলের রুক্ষতা দূর করতে প্যাকটি দারুণ কার্যকর।

মেথি ও আমলকীর প্যাক : সারারাত মেথি ও শুকনো আমলকী ভিজিয়ে রাখুন। সকালে সেটি পেস্ট করে নিন। এর পর এটি চুলে লাগিয়ে রাখুন ২০-২৫ মিনিট। শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু করে ফেলুন। প্যাকটি চুল নরম ও শাইনিং করে তুলবে।

নিমপাতা ও পেঁয়াজ : সপ্তাহে একদিন মেথি বাটা, পেঁয়াজ, নিমপাতা, লেবুর রস, টক দই ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগিয়ে রাখুন। ৩০-৩৫ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ফেলুন।