রোববার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২   আশ্বিন ১০ ১৪২৯   ২৮ সফর ১৪৪৪

শরীয়তপুরে বসতঘরে দুর্বৃত্তের আগুন- ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

নুরুজ্জামান শেখ শরীয়তপুর প্রতিনিধি।

প্রকাশিত : ১০:১৮ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০২০ বৃহস্পতিবার

শরীয়তপুর গোসাইরহাট উপজেলার নাগেরপাড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের উত্তর ভদ্রচপ গ্রামের মৃত নুরুল ইসলাম সারেং এর বাড়িতে গভীর রাতে বসত ঘরে দুর্বৃত্তের আগুন।


গত ৯ ডিসেম্বর ২০২০ বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে বারোটার দিকে  বসতঘরসহ পাঁচটি ঘর দুর্বৃত্তের আগুনে পুড়ে ছাই হয়। মৃত নুরুল ইসলাম এর পুত্র আলমগীর সারেং, জামাল সারেং এবং আবু বক্কর ফরাজী ও তার প্রতিবেশী রিজিয়া বেগমের ভূমি আছে গৃহ নাই সরকারি বরাদ্দকৃত বসতঘরসহ  পাঁচটি ঘর আগুনে পুড়ে ধ্বংস হয় । তাদের ওই বসত ঘর গুলি পুড়ে যাওয়ার কারণে ছেলে মেয়ে নিয়ে তারা এখন খোলা আকাশের নিচে। ঐ আগুনে, গোয়াল ঘরে থাকা একটি ষাঁড় বাছুর এবং চারটি বকরি পুড়ে দগ্ধ হয়। বসত ঘরে থাকা তাদের ব্যবহৃত আসবাবপত্রসহ মূল্যবান মালামাল পুড়ে ধ্বংস হয়। অসহায় গরীব রিজিয়া বেগম গণমাধ্যমকে বলেন নাগের পাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ মহসিন সরদার এর সহযোগিতায় আমি একটি সরকারি ঘর পাই, ওই ঘরে স্বামী সন্তান নিয়ে বসবাস করতাম কিন্তু এই রাতে ঘরে আগুন লাগার কারণে কোনরকম জান নিয়ে বের হয়েছি।

স্যার আমরা এখন নিঃস্ব হয়ে গেছি আমাদের এখন খোলা আকাশের নিচে থাকতে হবে। স্যার সরকারের কাছে সাহায্য চাই।

জামাল সারেং গণমাধ্যমকে বলেন পূর্বশত্রুতার জেরে গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা পরিকল্পিতভাবে পাট এবং পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগিয়েছে এমনকি দুর্বৃত্তরা প্রতিটি ঘরের বাহির থেকে শিকল আটকে দেয়। গভীর রাতে আগুন লাগার কারণে ঘর থেকে আমরা কিছু বের করতে পারিনি সবকিছু পুড়ে শেষ। গরু ছাগল সহ প্রায় ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।

গোসাইরহাট ফায়ার সার্ভিস লিডার মোহাম্মদ জিয়াউর রহমান মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে বলেন

গতকাল দিবাগত রাত একটার দিকে আমার  মুঠোফোনে কল আসে, নাগেরপাড়া ভদ্রচপ গ্রামের জামাল সারেং এর বাড়িতে আগুন লেগেছে তখনই তাৎক্ষণিকভাবে আমি ফায়ার সার্ভিস এর ৭সদস্য বিশিষ্ট একটি দল নিয়ে ঘটনাস্থলে চলে আসি এবং দীর্ঘক্ষন চেষ্টা করে আগুন নিভাতে সক্ষম হই। 

গোসাইরহাট থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শোয়েব আলী মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে বলেন গতকাল আগুনে বসতঘর পুড়ে যাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি অভিযোগ অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।