শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৭ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ দু’চার দিনের মধ্যে ওষুধ আসছে : কাদের ‘ডেঙ্গু নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সরকার ব্যর্থ’ ক্ষমা চাইলেন মেয়র আতিকুল রাজধানীর ২৪ হাটে পশু বেচাকেনা শুরু ডেঙ্গু প্রতিরোধে ৫৩ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্ধ ঢাবির ৬৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার দেশের চতূর্থ মানব রোবট তৈরি করলো কুবি শিক্ষার্থীরা
৭১

২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০১৯  

কোরবানির বর্জ্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণ করার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন।

বুধবার রাজধানীর নগর ভবনের সামনে এ ঘোষণা দেন তিনি।

কোরবানির বর্জ্য দ্রুত ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের সঙ্গে সভার আয়োজন করে ডিএসসিসি।

তিনি বলেন, ‘আসছে কোরবানির ঈদের বর্জ্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পরিষ্কার করবো। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা আমাদের এ ওয়াদা বাস্তবায়ন করে সবার প্রশংসা অর্জন করবো।’

গত বছরের ঘোষণার কথা স্মরণ করে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের উদ্দেশে মেয়র বলেন, ‘আপনারা গত বছর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে পরিচ্ছন্ন শহর নগরবাসীকে উপহার দিয়েছিলেন। আপনারা সম্মতি দিলে এবারো আমরা সেই ২৪ ঘণ্টা সময় বেধে দিতে চাই। কারণ, আমরা জনগণের কাছে যা ওয়াদা করি, তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করি।’

নগরবাসীর উদ্দেশে মেয়র বলেন, ‘আপনার করপোরেশনের নির্ধারিত স্থানে কোরবানি করলে আমাদের জন্য বর্জ্য অপসারণ সহজ হয়। এবার প্রতিটি ওয়ার্ডে পাঁচটি করে স্থান হিসেবে মোট ৩৩৯ টি কোরবানির স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সেখানে মৌলভী, কসাইসহ সার্বিক ব্যবস্থা করা থাকবে। আপনারা সেখানে পশু কোরবানি করুন।’

তিনি আরো বলেন, ‘যদি কোনো কারণে সেটা সম্ভব না হয়, তাহলে কোরবানির পর রক্ত ভালো করে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে সেখানে করপোরেশনের সরবরাহকৃত ফ্রি ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে দিবেন। সেই সাথে সাথে যেসব বর্জ্য উৎপাদন হবে করপোরেশনের দেয়া বিনামূল্যের ব্যাগে ভরে নির্দিষ্ট কনটেইনারে ফেলে দিবেন।’

তিনি বলেন, ‘কোথাও পরিচ্ছন্নকর্মী না থাকলে, যদি বর্জ্য পড়ে থাকতে দেখেন, তাহলে আমাদের করপোরেশনের হট লাইন নম্বর ০৯৬১১০০০৯৯৯ এ যোগাযোগ করবেন। আমাদের পরিচ্ছন্নতাকর্মী গিয়ে ময়লা পরিষ্কার করে দেবে। আপনারা পাশে থাকেন, আমরা পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দেব।’

পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বিভিন্ন দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়ে মেয়র বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমরা ৫২৫ টি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করেছি। আমি আশা করি, প্রত্যেক পরিচ্ছন্নকর্মীর একটি করে ফ্ল্যাট থাকবে। আপনাদেরকে আমরা গত তিন বছর থেকে উৎসব ভাতা দেই। সে ভাতা ১৫০০ টাকা থেকে ২০০০ টাকায় বৃদ্ধি করেছি।’

এই বিভাগের আরো খবর