শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৭ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ দু’চার দিনের মধ্যে ওষুধ আসছে : কাদের ‘ডেঙ্গু নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সরকার ব্যর্থ’ ক্ষমা চাইলেন মেয়র আতিকুল রাজধানীর ২৪ হাটে পশু বেচাকেনা শুরু ডেঙ্গু প্রতিরোধে ৫৩ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্ধ ঢাবির ৬৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার দেশের চতূর্থ মানব রোবট তৈরি করলো কুবি শিক্ষার্থীরা
৫৮৭

লাকসামে ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২ জুলাই ২০১৯  

লাকসামে অবৈধভাবে সংযোগ দিয়ে গ্যাস ব্যবহারের অভিযোগে এক ইউপি চেয়ারম্যানের মালিকানাধিন ভবন, বাণিজ্যিক ও আবাসিকসহ ৮টি চুলার গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। অন্যদিকে, বিল পরিশোধ থাকার পরও একটি ভবনের ৯টি চুলার বৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয়দের চাপের মুখে ক্ষমা চেয়ে পূনঃরায় সংযোগ দিয়ে কর্মকর্তারা ফিরে আসে। 

গতকাল সোমবার লাকসাম রাজঘাট ও দক্ষিণ বাইপাস এলাকায় বাখরাবাদ গ্যাস লিঃ -এর ডিজিএম মাহবুবুল আলম ছিদ্দিকির নেতৃত্বে একটি দল এ অভিযান চালায়। বাখরাবাদ গ্যাস কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ বাইপাস এলাকায় সুরক্ষা হাসপাতালের বিপরীতে পার্শ্ববর্তী মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আল আমিনের মালিকানাধিন ভবনের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ- ১টি চুলার সংযোগ নিয়ে ৪টি চুলায় গ্যাস ব্যবহার করছেন। এছাড়াও তার ভবনের পাশে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মোশারফ হোসেন ১টি চুলার সংযোগ নিয়ে ২টি চুলায় গ্যাস ব্যবহার করছিলেন।

অপরদিকে, পৌরসভার রাজঘাট এলাকায় আবু বকর ছিদ্দিক নামে এক ব্যক্তি সম্পূর্ণ অবৈধ সংযোগ দিয়ে বেকারি পরিচালনার দায়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে মাটির সাথে মিশিয়ে দেয়া হয়। একইদিন ওই এলাকার আলী আলমাছ নামে অপর একজনের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এ সময় আরো বাখরাবাদ গ্যাস লিঃ -এর লাকসাম (এবিকা) ইনচার্জ মোবারক হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপাস্থত ছিলেন।

এদিকে, সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া গ্রাহক প্রবাসীর স্ত্রী কিরণ আক্তারসহ অন্যান্যরা জানান, বাখরাবাদের লাকসাম অফিসকে ম্যানেজ করেই এ সকল গ্যাস সংযোগ নেয়া হয়েছে। অন্যদিকে, গ্যাস বিল পরিশোধ থাকা সত্ত্বেও শাহাদাত হোসেন নামে এক ভবন মালিকের ৯টি চুলার সংযোগ কেটে দিয়ে বিপাকে পড়ে কর্মকর্তারা। পরে স্থানীয়দের চাপের মুখে ক্ষমা চেয়ে পূনঃরায় সংযোগ দিয়ে কর্মকর্তারা ফিরে যায়।

তবে এ বিষয়ে বাখরাবাদ গ্যাস লিঃ -এর লাকসাম (এবিকা) ইনচার্জ মোবারক হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া যায়নি।
 

এই বিভাগের আরো খবর