শুক্রবার   ১৯ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৩ ১৪২৬   ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ সোমালিয়ায় হোটেলে জঙ্গি হামলায় সাংবাদিকসহ নিহত ৭ জামালপুরে ‘মাথা নেওয়ার গুজবে’ যুবক গ্রেপ্তার সিলেট–সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত আসামে বন্যায় আক্রান্ত ৮ লাখ মানুষ, নিহত ৬ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধসে নিহত ২
৯৫

রাজশাহীতে বর্ণিল আয়োজনে বাংলা নববর্ষকে স্বাগতম

প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০১৯  

সারাদেশের ন্যায় রাজশাহীতেও বর্ণিল আয়োজনে ১৪২৬ বাংলা নববর্ষকে স্বাগতম জানানো হয়েছে।
রোববার সকালে বৈশাখের বর্ণিল সাজে মেতে উঠে রাজশাহীর বিভিন্ন  স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে কিনে রাখে পছন্দের শাড়ি আর পাঞ্জাবী। রং বেরং এর ফুলের সমারোহ ছিল সকাল থেকে। মুহুর্মুহু গন্ধে সুবাসিত রাজশাহীর আকাশ বাতাস। সকাল থেকেই আকাশটা রৌদ্রময়।

মিষ্টি রৌদ্রময় আবহাওয়াতে নতুন বছরকে স্বাগতম জানিয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসন,রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী কলেজসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। বর্ণিল সাজে সাজানো হয় পুরো শহরকে। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগগুলো তো ছিল উৎসবের মেলা। প্রতিটি বাজারে চোখে পড়েছে বাঙ্গালীর ঐতিহ্যের  নানা ধরনের দেশীয় পণ্যের সমারোহ।
নববর্ষ কেন্দ্রিক সকাল থেকেই গতানুগতিকভাবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ব্যানারে র‌্যালি বের করা হয়। র্যালি বিভিন্ন  বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্ব সস্ব প্রতিষ্ঠানে গিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মিলিত হয়।
শোভাযাত্রায় সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ  অংশগ্রহণ করে।  আর শোভাযাত্রা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের সুরে মেতে উঠে বাঙ্গালীরা।

এদিন সূর্য উঠার সাথে সাথেই নগরীর  পদ্মা পাড়ের ঘোষপাড়া বটতলায় বাংলা বর্ষবরণের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান শুরু হয় । ১৪২৬ সালের সকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারের বাংলোর পেছনের মাঠেও জমজমাট সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। রাজশাহী জেলা পরিষদ কার্যালয়েও আনন্দঘন পরিবেশে ইলিশ পান্তা উৎসব পালিত হয়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এই উৎসবকে ঘিরে নৃত্য, নাটক, কবিতা আবৃত্তি ও সঙ্গীতের আয়োজন করা হয়। রাবির চারুকলা বিভাগের সক্রিয়তায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস রঙ্গিন হয়ে উঠে।
বাংলা নববর্ষকে ঘিরে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) মঙ্গল শোভাযাত্রার পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক ও লোকজ সঙ্গীতের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী কলেজ থেকে সকাল সাড়ে ৯টায় বিশাল মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়।

এ দিন রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার, সব সরকারি হাসপাতাল ও শিশু পরিবার এবং শিশু সনদে উন্নতমানের ঐতিহ্যবাহী বিশেষ বাঙালি  খাবার প্রদান করা হয়। রাজশাহী জেলখানায়  কারাবন্দিদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উৎসবের সাথে পালিত হয়েছে।
নববর্ষ উপলক্ষে আজ দর্শনার্থীরা বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর, শহীদ কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও শহীদ জিয়া শিশু পার্ক, পদ্মার পাড়, লালন শাহ মুক্তমঞ্চসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান পরিদর্শন করেছেন। অন্যান্য দিনের তুলনায় এসব দর্শনীয় স্থানসমূহে দর্শনার্থীর সংখ্যাও ছিল অনেক বেশি।  তাছাড়া জেলার সব উপজেলায় পৃথকভাবে নববর্ষকে বরণ করা হয়।
সবমিলিয়ে সকল দুঃখ গ্লানি ভুলে নতুন বছরটি সবার জন্য সুখময় হোক সেটাই সকলের প্রত্যাশা। আর বাঙ্গালীর নিজস্ব স্বকীয়তা অমর থাকুক সেটাই কাম্য।

এই বিভাগের আরো খবর