মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬   ১৬ রমজান ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
বিএনপির মনোনয়ন পেলেন রুমিন ফারহানা ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের আন্দোলন স্থগিত অভিমান থেকে পদত্যাগের কথা বলেছিলাম: গোলাম রাব্বানী রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী শাওনের আত্মহত্যা হাতে বালিশ নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ কাজের গতি বাড়াতে মন্ত্রিসভায় পুনর্বিন্যাস : সেতুমন্ত্রী ইরান-যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধের আশঙ্কা, মধ্যপ্রাচ্যে আতঙ্ক ব্রাজিলে বন্দুক হামলায় ১১ জন নিহত বুথফেরত জরিপ বিশ্বাস করি না: মমতা বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সহায়তা অব্যাহত থাকবে
৩৭১

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ীতে প্রেমিকার অবস্থান

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০১৯  

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে এক কলেজ ছাত্রী। ফলে প্রেমিক সেনা সদস্য মিরাজের বিয়ে ভন্ডুল হয়েগেছে। এ ঘটনার পর থেকে পালিয়ে গেছে প্রেমিক। “হয় বউ, না হয় লাশ হয়ে” প্রেমিকের বাড়ির কবরে যাবেন বলে জানিয়েছেন অবস্থানকারী ওই প্রেমিকা।

সরেজমিনে জানাগেছে, উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলবাড়ী গ্রামের নুরুল হক খন্দকারের ছেলে সেনা সদস্য মিরাজ খন্দকারের সাথে মাদারীপুর জেলার সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীর সাথে গত ৩ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

গত বৃহস্পতিবার মিরাজ খন্দকার ওই ছাত্রীকে ফোন দিয়ে তার বিবাহর কথা জানায়। ওই দিনই ওই কলেজ ছাত্রী মিরাজ খন্দকারের বাড়ীতে এসে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়। সাথে সাথে মিরাজ বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। ভন্ডুল হয়ে যায় মিরাজের বিয়ে।

মিরাজ খন্দকারের বাড়ী অবস্থানকারী ওই ছাত্রী জানান, মিরাজের বাড়ীর পাশেই আমার মামা ও খালা বাড়ী।  এখানে আসা যাওয়ার সুবাদে মিরাজের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক হয়। সে বর্তমানে রাঙ্গামাটি ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত আছে। এখান থেকে ছুটিতে এসে বিভিন্ন সময়ে মিরাজ আমাকে বিয়ের আশ^াস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়েছে। মিরাজ যদি এখন আমাকে বিয়ে না করে তা হলে এই বাড়ীতেই আমি আত্মহত্যা করবো।

এ ব্যাপারে মিরাজের বাবা নুরুল হক কোন প্রকার মন্তব্য করতে রাজি হননি।

রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অমৃত লাল হালদার বলেন, শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত ছেলে এবং মেয়ে পক্ষ মিলে বিষয়টি নিয়ে সামাজিকভাবে বসেছিল। শুনেছি উভয় পক্ষই ছেলে মেয়ের বিয়ে দিতে একমত হয়েছে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর