রোববার   ২১ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ সোমালিয়ায় হোটেলে জঙ্গি হামলায় সাংবাদিকসহ নিহত ৭ জামালপুরে ‘মাথা নেওয়ার গুজবে’ যুবক গ্রেপ্তার সিলেট–সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত আসামে বন্যায় আক্রান্ত ৮ লাখ মানুষ, নিহত ৬ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধসে নিহত ২
১৭৮

বাজেটের আকারে শীর্ষ ১০ দেশ

প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৯  

বিশ্বে বাজেটের আকারে শীর্ষ দেশ যুক্তরাষ্ট্র। এরপর চীন। এই দেশ দুটির বাজেট বড় হওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ সামরিক ব্যয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট কংগ্রেসের কাছে অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবনা পেশ করেন।


অপরদিকে চীনের বাজেট অনুমোদন দেয় চীন ন্যাশনাল পিপলস। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ অর্থবছরে যুক্তরাষ্ট্রের বাজেটের আকার ছিল ছয় লাখ ৮০ হাজার ৭১৬ কোটি মার্কিন ডলার। অন্যদিকে, চীনের তিন লাখ ৭৮ হাজার ৭২৪ কোটি ডলার। যুক্তরাষ্ট্রের বাজেটের অন্যতম দিক হল ‘শার্টডাউন’। বাজেট পাসের অচলাবস্থাকে এই নামে ডাকা হয়। ফলে সরকারি সেবা খাত বন্ধ হয়ে যায়, আটকে যায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা। ১৯৯৫ সালে রেকর্ড ২১ দিন এমন পরিস্থিতি ছিল।

বাজেটের আকারে তৃতীয়, চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে যথাক্রমে- জার্মানি, জাপান, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্য। জার্মানির বাজেটের আকার এক লাখ ৯০ হাজার কোটি ডলার, জাপানের এক লাখ ৮৮ হাজার ৮০০ কোটি ডলার, ফ্রান্সের এক লাখ ৪১ হাজার ২০০ কোটি ডলার, যুক্তরাজ্যের এক লাখ ১২ হাজার কোটি ডলার। ৯২ হাজার ৭৮০ কোটি ডলারের বাজেট নিয়ে এ তালিকায় সপ্তম স্থানে রয়েছে ইতালি।

ব্রাজিলের বাজেটের আকার ৭৭ হাজার ৯৫৩ কোটি ডলার। দেশটির অবস্থান অষ্টম। ৭২ হাজার ৫০৫ কোটি ডলারের বাজেট নিয়ে তালিকায় ভারতের অবস্থান নবম। কানাডার বাজেটের আকার ৬৫ হাজার ৭৪০ কোটি ডলার। দেশটির অবস্থান দশম।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পরবর্তী সময় থেকে জাপানের জাতীয় বাজেট তৈরি করে থাকে অর্থ মন্ত্রণালয়। অপরদিকে, আয়তনের দিক থেকে রাশিয়া পৃথিবীর বৃহৎতম রাষ্ট্র হলেও বাজেটের অর্থের পরিমাণের দিক থেকে তাদের অবস্থান ১২তম স্থানে। বাজেটের সঙ্গে অর্থবছর সরাসরি সম্পৃক্ত বিষয়।

বিশ্বের প্রায় ১৫৪ দেশে অর্থবছর শুরু হয় ইংরেজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী। অর্থাৎ জানুয়ারি মাসে। এ ছাড়া জুলাই মাসেও অনেক দেশে অর্থবছর শুরু হয়। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, বাংলাদেশের অর্থবছর শুরু হয় ১ জুলাই, শেষ হয় ৩০ জুন। চীন, ব্রাজিল, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মালয়েশিয়া, শ্রীলংকা ও মালদ্বীপ, স্পেন, অস্ট্রিয়া, পর্তুগাল, রাশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও সুইডেনে অর্থবছর শুরু হয় ১ জানুয়ারি আর শেষ হয় ৩০ ডিসেম্বর।

ভারত, যুক্তরাজ্য, হংকং, কানাডা এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় অর্থবছর শুরু হয় ১ এপ্রিল, শেষ হয় ৩১ মার্চ। যুক্তরাষ্ট্র, কোস্টারিকা ও থাইল্যান্ডে অর্থবছর শুরু হয় ১ অক্টোবর, শেষ হয় ৩০ সেপ্টেম্বর। কোনো কোনো দেশ যেমন নেপাল (১৬ জুলাই-১৫ জুলাই), ইরান (২১ মার্চ-২০ মার্চ), ইথিওপিয়া (৮ জুলাই-৭ জুলাই) মাসের মধ্যবর্তী তারিখ থেকে অর্থবছর শুরু করে থাকে।

ইরানের অর্থবছর হিজরি সন অনুসারে হয়ে থাকে। আর নেপালের অর্থবছর বিক্রম ক্যালেন্ডার অনুসরণ করে। সাধারণত সরকারি হিসাব-নিকাশের সুবিধার্থে অর্থবছর নির্ধারণ করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর