ব্রেকিং:
ক্রিকেটারদের এ আন্দোলন কারোর বিরুদ্ধে নয়, এ আন্দোলন দাবি আদায়ের : ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান

বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
দুই সাংসদসহ ২২ জনের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা আবরারের রুমমেট মিজান ৫ দিনের রিমান্ডে ফিটনেস নবায়নহীন যানবাহনে তেল নয়: হাইকোর্ট ফেনীর চাঞ্চল্যকর নুসরাত হত্যার রায় কাল ন্যাম সম্মেলন : প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার আজারবাইজান যাচ্ছেন জয়পুরহাটে গৃহবধু ধর্ষণ ও হত্যায় সাতজনের ফাঁসি
৪৩১

ফাঁসানো হয়েছে নাজিরপুরের ছাত্রলীগ নেতা তারেক হাসানকে

নাজিরপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৭ জুলাই ২০১৯  

অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান  শেখ রন্জু’র সাথে মুঠো ফোনে সাক্ষাৎকারে উঠে আসে আসল ঘটনা। রন্জু বলেন, তারেক হাসান পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ তুতবাড়ী গ্রামের আবুল হাশেম খলিফার ছেলে। আবুল হাশেম খলিফা একজন স্কুল শিক্ষক এবং পিরোজপুর জেলার শিক্ষক সমিতির চেয়ারম্যান ছিলেন।তিনি আদর্শবান পিতা। তার ছেলে এমন হতেই পারেনা । তারেক হাসান এর আরেক বড় ভাই ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি।  রন্জু আরো জানানা,  তারেক হাসান এর পরিবারের সাথে এক কুচক্রি মহলের দীর্ঘদিনের পূর্ব শত্রুতা আছে। ঐ কুচক্রি মহল পুর্ব শত্রুতার জের ধরে তারেক হাসানকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কায়দায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছিল। তারেক হাসানের অপরাধ হলো-মালীখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ ও রাজপথ এবং জনপ্রিয়তার দিক থেকে সবার চেয়ে ঊর্ধ্বে। ইতিমধ্যে তারেক হাসান নিজের যোগ্যতা প্রমান করে নাজিরপুর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নির্বাচিন হন। দিনে দিনে তারেক হাসান বড় নেতা হয়ে যাচ্ছে সেটা তারেক হাসানের এলাকার কুচক্রি মহলের মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।


 
স্থানীয় সূত্র ও নাজিরপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান  শেখ রন্জু’র কাছ থেকে আরো জানান , হতদরিদ্র পরিবারের ওই নারীর (হীরা) বাবা মারা যাওয়ার পরে সে মায়ের সাথে মামা বাড়ীতে বসবাস করে আসছিল।মায়ের সাথে বসবাস রত অবস্থায় তার কয়েক বার বিয়ে হয়। ঐ নারী (হীরা) কোনো স্বামীর সংসারে থাকতে পারেনি। পরিশেষে বাগের হাট জেলার চিতলমারী উপজেলায় ওই নারীর বিয়ে হলেও স্বামীর সাথে বনিবনা হত না, বনি বনা না হওয়ায় ৫ বছরের মেয়েকে নিয়ে সে আবার মায়ের কাছে চলে আসে এই এক সন্তানের জননী। তখন থেকে বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জরিয়ে পড়ে পেটের দায়ে।টাকার বিনিময়ে সে এখন সব কিছুই করতে পারে। গত সপ্তাহে পাশের এলাকায় একই ভাবে এক ছেলেকে মামলার ভয় দেখিয়ে ব্লাকমেইল করে হাতিয়ে নিয়েছে ৪০হাজার টাকা। এরকম অনেক উদাহরণ আছে। তারেক হাসানের বিপক্ষ গ্রুপ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই নারীকে ব্যাবহার করে ফাঁদে ফেলে ষড়যন্ত্রের চেস্টা করতে চেয়েছিল।

নাজিরপুর থানার ওসি মোঃ মুনিরুল ইসলাম এর কাছে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন,এই মহিলাটি খুব খারাপ এবং কয়েক জায়গায় এ রকম ঘটনা ঘটিয়েছে সে খবর আমরা জানতে পেরেছি।বিষয়টি খুব সেনসিটিভ। আমি জানি, তারেক হাসান নাজিরপুর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।ছাত্র রাজনীতিতে রাজপথে অনেক পরিশ্রম করে। রাজপথের লড়াকু সৈনিকও বটে।আমরা জানতে পেরেছি, তারেক হাসান এর বাবা স্কুল শিক্ষক ছিলেন।তিনি একজন আদর্শবান পিতা।

এই বিভাগের আরো খবর