ব্রেকিং:
ক্রিকেটারদের এ আন্দোলন কারোর বিরুদ্ধে নয়, এ আন্দোলন দাবি আদায়ের : ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান

বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
দুই সাংসদসহ ২২ জনের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা আবরারের রুমমেট মিজান ৫ দিনের রিমান্ডে ফিটনেস নবায়নহীন যানবাহনে তেল নয়: হাইকোর্ট ফেনীর চাঞ্চল্যকর নুসরাত হত্যার রায় কাল ন্যাম সম্মেলন : প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার আজারবাইজান যাচ্ছেন জয়পুরহাটে গৃহবধু ধর্ষণ ও হত্যায় সাতজনের ফাঁসি
৩০২

প্রেম করে বিয়ে, তিন দিনের মাথায় আত্মহত্যা

আমিনুল ইসলাম শান্ত

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০১৯  

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় মেহেদির রং না শুকাতেই বিয়ের তিন দিনের মাথায় পাপিয়া খাতুন নামে এক কলেজছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী ও তাঁর পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

নিহত পাপিয়া খাতুন খোকসা উপজেলার হিলালপুর গ্রামের ওমর আলীর মেয়ে। তিনি খোকসা সরকারি ডিগ্রি কলেজের তৃতীয় বর্ষে পড়তেন।

পাপিয়ার স্বজনরা জানায়, পাপিয়ার সঙ্গে একই কলেজের ছাত্র শামীম রেজার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে কলেজছাত্রী পাপিয়ার বাবার বাড়িতে তাদের বিয়ে হয়। কিন্তু এ বিয়ে শামীম রেজার পরিবার মেনে নিতে পারেনি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নববধূকে রেখে শামীম নিজের বাড়ি যান। পরে তিনি না ফিরলে নবদম্পতির মধ্যে মোবাইল ফোনে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ওই রাতেই নববধূ আত্মহত্যা করেন। আজ শুক্রবার সকালে পরিবারের সদস্যরা ফ্যানের সঙ্গে মৃতদেহ ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে তাঁর লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের বাবা ওমর আলী জানান, শামীম পালিয়ে যাওয়ায় পাপিয়া অভিমানে আত্মহত্যা করেছেন। এ ব্যাপারে কথা বলতে শামীমকে ফোনে পাওয়া যায়নি। সেই সঙ্গে তাঁর বাবা রাজ্জাক বিশ্বাসের বাড়ি উপজেলার মির্জাপুরে গিয়েও কারো দেখা মেলেনি।

খোকসা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বুলবুল আহমেদ জানান, এ ব্যাপারে অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর