ব্রেকিং:
ক্রিকেটারদের এ আন্দোলন কারোর বিরুদ্ধে নয়, এ আন্দোলন দাবি আদায়ের : ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান

বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
দুই সাংসদসহ ২২ জনের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা আবরারের রুমমেট মিজান ৫ দিনের রিমান্ডে ফিটনেস নবায়নহীন যানবাহনে তেল নয়: হাইকোর্ট ফেনীর চাঞ্চল্যকর নুসরাত হত্যার রায় কাল ন্যাম সম্মেলন : প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার আজারবাইজান যাচ্ছেন জয়পুরহাটে গৃহবধু ধর্ষণ ও হত্যায় সাতজনের ফাঁসি

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ডেপুটি ডিরেক্টর পরিচয়ে প্রতারণা

তরুণ কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ডেপুটি ডিরেক্টর পরিচয় দেয়া এক প্রতারককে গাজীপুরের শিমুলতলী থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১-এর সদস্যরা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই এলাকার মৌবাগ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ইল্লাম শাহারিয়ার (৩৭) ঢাকার বারিধারার ডিওএইচএস এলাকার মো. সাদিক হাসানের ছেলে। ইল্লামকে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছেন গাজীপুর জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌস।

র‌্যাব জানায়, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে র‌্যাব-১-এর গাজীপুর পোড়াবাড়ি ক্যাম্পের সদস্যরা গোপন সংবাদে জানতে পারে শিমুলতলী এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ডেপুটি ডিরেক্টর পরিচয়দানকারী প্রতারক ইল্লাম শাহরিয়ার অবস্থান করছে। ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আব্দুল্লাহ আল-মামুনের নেতৃত্বে এবং গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌসের উপস্থিতিতে অভিযান চালিয়ে ইল্লাম শাহরিয়ারকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযানকালে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারির নামে একটি আইডি কার্ড, অ্যাডিশনাল ডিরেক্টরের নামে একটি আইডি কার্ড, ডেপুটি ডিরেক্টরের নামে কাগজের প্রিন্ট করা দুই পাতা কার্ড, ডেপুটি সেক্রেটারির এক পাতা কার্ড, ডেপুটি ডিরেক্টরের নামে পাঁচশটি ভিজিটিং কার্ড, সত্যায়িত প্রজ্ঞাপন দুই পাতা, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অফিস আদেশ চার পাতা, বিভিন্ন প্রকার ব্যক্তির নামে (এসএসএফ পরিচালক, সচিব, ব্রিটিশ হাইকমিশনার, বিভিন্ন ব্যাংকসহ বিভিন্ন অফিসের নামে)-১৫ টি সিল, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মনোগ্রামের ট্র্যাকসুট, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মনোগ্রাম ছোট/বড়-২০টি, বাংলাদেশের মানচিত্র মনোগ্রাম পাঁচটি, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মনোগ্রাম যুক্ত আইডি কার্ডের ফিতা দুটি, এসএসএফর মনোগ্রামসহ ফিতা তিনটি, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের চেক বই একটি, সাউথইস্ট ব্যাংকের চেক বই একটি, সোনালী ব্যাংকের চেক বই একটি, ট্রাস্ট ব্যাংকের চেক বই একটি, নগদ ছয় লাখ টাকা, দুটি মোবাইল, মাইক্রোবাস একটি, পিএমও লিখা কালো ক্যাপ একটি, জ্যাকেট একটি, এসএসএফর জলপাই রঙের পোশাক একটি, সিগন্যাল লাইট একটি, ওয়াকিটকি দুটি, লাইটার পিস্তল একটি, খেলনা পিস্তল একটি, এসএসএফর আইডি কার্ড একটি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আইডি কার্ড একটি উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, ইল্লাম শাহরিয়ার পেশায় একজন আইটি বিশেষজ্ঞ। ওই পেশার আড়ালে সর্বসাধারণের কাছে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের আইটি সেকশনের ডেপুটি ডিরেক্টর পরিচয়দানের পাশাপাশি তার ব্যবহৃত গাড়িতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের বিভিন্ন স্টিকার, মনোগ্রাম, ওয়াকিটকি সেটসহ এসএসএফর ব্যবহৃত পোশাক ও ক্যাপ ব্যবহার করে আসছিলেন।

তিনি জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন, দীর্ঘদিন নিজেকে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের আইটি সেকশনের ডেপুটি ডিরেক্টর হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকতা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষের কাছ থেকে চাকরি, পদোন্নতি, বদলি, বিদেশে প্রেরণের কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়েছেন। তাকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর