শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
সর্বশেষ:
২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ দু’চার দিনের মধ্যে ওষুধ আসছে : কাদের ‘ডেঙ্গু নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সরকার ব্যর্থ’ ক্ষমা চাইলেন মেয়র আতিকুল রাজধানীর ২৪ হাটে পশু বেচাকেনা শুরু ডেঙ্গু প্রতিরোধে ৫৩ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্ধ ঢাবির ৬৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার দেশের চতূর্থ মানব রোবট তৈরি করলো কুবি শিক্ষার্থীরা
৯৫

দাহ্য পদার্থের গুদাম সরাতে কোনো বাধা মানব না : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৭ মার্চ ২০১৯  

পুরান ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পুরান ঢাকায় কোনোভাবেই কোনো ধরনের দাহ্য পদার্থের গুদাম রাখা যাবে না। এ ক্ষেত্রে কোনো বাধা মানব না।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলামকে শপথ গ্রহণ করানোর পর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আমি সুন্দর ঢাকা দেখতে চাই উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ব্যবসা বন্ধ করা যাবে না। তার জন্য আলাদা জায়গা আমরা খুঁজে দিচ্ছি। চকবাজারে দাহ্য পদার্থের কোনো গোডাউন থাকবে না, শো রুম থাকতে পারে। ব্যবসা নষ্ট করতে চাই না। গোডাউনের জন্য আলাদা জায়গা করে দেয়া হবে।

সরকারপ্রধান বলেন, এখানে তারা তাদের শো রুম রাখতে পারবে। যে পণ্য উৎপাদন করে তা বিক্রি করতে পারবে। কিন্তু গুদামের জন্য আমরা সম্পূর্ণ আলাদা জায়গা করে দেব। যেখানে দাহ্য পদার্থ থাকা নিরাপদ।

শেখ হাসিনা বলেন, একবার নিমতলী হয়ে গেল, এখন এতবড় ঘটনা। কতোগুলো মানুষের জীবন চলে গেল, কাজেই এখানে যে বাধাই আসুক, কোনো বাধাই আমরা মানব না। আমরা এটাকে (দাহ্য পদার্থের গুদাম) সরিয়ে নিয়ে যাব।

আজ ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত কাউন্সিলররাও শপথগ্রহণ করেছেন।

নতুন শপথ নেয়া জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জনপ্রতিনিধি নির্বচিত হয়েছেন। জনগণের জন্য কাজ করবেন। জনগণ আপনাদের নির্বাচিত করেছে তাদের এলাকার সমস্যা সমাধানের জন্য। সেবা করার জন্য।

অনুষ্ঠানে ডিএনসিসির নতুন মেয়র আতিকুল ইসলামকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে কাউন্সিলরদের শপথ বাক্য পাঠ করান স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শপথ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য। সঞ্চালনা করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব এসএম গোলাম ফারুক।

উল্লেখ, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে তিনি মেয়র নির্বাচিত হন। আতিকুল ইসলাম নৌকা প্রতীক নিয়ে মোট ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৩০২ ভোট পান। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ৫২ হাজার ৪২৯ ভোট পান।

এ ছাড়া উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সম্প্রসারিত ওয়ার্ডগুলোতে সাধারণ নির্বাচন হয়। এ নির্বাচনে দেশের আরেকটি বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপি অংশগ্রহণ করেনি।

এই বিভাগের আরো খবর