শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

তরুণ কণ্ঠ|Torunkantho
৩৭৩

অবৈধ ড্রেজার দিয়ে চলছে বালু উত্তোলন, হুমকির মুখে পরিবেশ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০১৯  

প্রতিকী ছবি

প্রতিকী ছবি

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার সেনেরচর ও গোপালপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন খাল- বিল,নদী- নালা, পুকুর হইতে রিপন ঢালীর বিরুদ্ধে অবৈধ ড্রজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে বালু বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে ¯হানীয় সুত্রে পাওয়া গেছে । এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে অবৈধ ড্রেজার ব্যাবসায়ী রিপন ঢালী প্রায় আট বছর যাবত ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে ফসলী জমি সহ সরকারি রাস্তা ঘাট ধ্বংস করে আসছে। এলাকার সচেতন জনগন বার বার বাধা দেওয়া সত্বেও সে কারো কথা তোয়াক্কা না অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে পরিবেশ- সমাজ রাষ্ট্রের মূল্যবান স¤পত্তি ধ্বংস করে আসছে।


এমন কি পুলিশ প্রশাসন ও জাজিরা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন কারি ভূমিদস্যু রিপন ঢালী ও তার ছেলে রিংকু ঢালি কে বার বার নিশেধ করা সত্তেও তাদের কথা অমান্য করে এলাকার গরিব দঃখী মানুষের ফসলি জমি ও সরকারি রাস্তাঘাট ধ্বংস করে এলাকায় বালু বিক্রি করে আসছে।¯হানীয় সূত্রে আরো জানাগেছে অবৈধ ড্রজার ব্যবসায়ী রিপন ঢালী ও তার ছেলে রিংকু ঢালি এলাকায় বিভিন্ন অসামাজিক অপকর্মের সাথে জড়িত আছে। ঐ এলাকার সাধারন জনগন তাদের পিতা- পুত্রের এসব সামাজ বিরোধী কাজে বাঁধা দিতে গেলে তাদের সাথে খারাপ আচরন করে এমন কি বিভিন্ন সময়ে প্রাননাশের হুমকি দেয়। শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ডাগু ঢালী কান্দী গ্রামে বসবাসরত আব্দুল লতিফ ঢালীর বড় ছেলে জুয়েল ঢালী বর্তমানে জনগনের ভোটে নির্বাচিত মেম্বার। মেম্বার জুয়েল ঢালী বর্তমান সময়ের সমাজ বিরোধী কাজের প্রতিবাদী বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর। সরোজমিন ঘুরে জানা গেছে মেম্বার জুয়েল ঢালী সমাজে কোন অন্যায় কাজ করেনা এবং কাউকে করতে ও দেয়না এবং করতে গেলেও বাধা দেয়।অত্র এলাকার গরিব দুঃখী সাধারণ জনগন এবং গন্যমান্য ব্যক্তীবর্গ সাক্ষাৎ কারে বলেন রিপন ঢালী ও তার ছেলে রিংকু ঢালি দীর্ঘ দিন যাবত অবৈধ ড্রজারের দিয়ে সাধারণ মানুষের ফসলি জমি ক্ষতি করে এবং সরকারি রাস্তাঘাট ধ্বংস করে বালুমাটি উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছে।

তাদের পিতা- পুত্রের সমাজ বিরোধী কাজে ও অবৈধ ড্রজার দিয়ে বালু উত্তোলনে বাধা দেওয়ায় জুয়েল মেম্বার তাদের কাছে শত্র“তে পরিনত হয়েছে। জুয়েল ঢালী সাক্ষাৎ কারে বলেন গত ২৬ জুন দুপর দুইটার দিকে সেনেরচর ইউনিয়নের গুল্লার বাজার এর বড় ব্রিজের পূর্ব পাশে আমার রট সিমেন্টের দোকানের ভিতরে বসা ছিলাম ঐ সময় রিপন ঢালীর ছেলে রিংকু ঢালি তার সাঙ্গা পাঙ্গো কমপক্ষে বিশ থেকে পচিশ জন মিলে আমাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে লাঠি সোটা এবং দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে আহত করে।আমি বাচার জন্য চিৎকার করলে আমার আপন চাচা খোকন ঢালী বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাকে ও পিটিয়ে আহত করে। জুয়েল ঢালী আরো বলেন আমার মা শাহানাজ বেগম (৫৫) আমাদের উপর আক্রমণের কথা শুনে আমাদরকে বাচাঁতে দৌড়ে আসলে তারা আমার মাকে ও পিটিয়ে আহত করে।স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় আমাদের কে উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়।জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কতর্ব্যরত চিকিৎসক আমার মাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আশংখাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে। আমি জুয়েল ঢালী আহত অবস্থায় বাদি হয়ে জাজিরায় থানায় একটি মামলা দায়ের করি। জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেনের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন মেম্বার জুয়েল ঢালী বাদী হয়ে অপরাধিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের কর এবং বর্তমানে আসামীরা জামিনে আছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর